জেলা ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি রাজিব ইয়াবা, অস্ত্র-গুলিসহ র‍্যাবের হাতে আটক !!

সারা বাংলা ডেস্ক: বাংলা অলটাইম নিউজ ডটকম:
শারিয়ার ইমন:-গোপন সংবাদের ভিত্তিতে গতকাল বিকেলে কুষ্টিয়া র‍্যাব-১২ অভিযান চালিয়ে কুষ্টিয়া জেলা ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি মাদক ও অস্ত্রের ডিলার রাজিব আহম্মেদ (২৮) ১৬০ পিচ ইয়াবা, ২৩ রাউন্ড শটগানের গুলি, অবৈধ ইয়ার গান ও ৫ শতাধিক ইয়ার গানের গুলি, বিভিন্ন আগ্নেয়াস্ত্রের অংশবিশেষসহ র‍্যাবের হাতে আটক হয়েছে ।

কুষ্টিয়া জেলা ছাত্রলীগের নেতা রাজিব আহম্মেদ ।

আটককৃত কুষ্টিয়া জেলা ছাত্রলীগের নেতা রাজিব আহম্মেদ কুষ্টিয়া সদর উপজেলার খাজানগর এলাকার বিশিষ্ট খুদ গুড়া ও চাউল ব্যবসায়ী মোহাম্মদ আলী জিন্নাহ ছেলে।

জানা যায়, রাজিব আহম্মেদ দীর্ঘদিন ধরে মাদক ও অস্ত্রের ব্যবসা করে আসছিল। এর আগে দু বছরে মাদক ও অস্ত্রসহ দুই বার আটকও হয়েছে। কিন্তু বাবা কোটিপ্রতি হওয়ায় তাকে বেশী সময় আটক থাকতে হয়নি!

এলাকাবাসী জানায়, জিন্নাহ নিজের গাড়িতে করেই কৌশলে বিভিন্ন জায়গায় মাদক সরবরাহ করে আসছে এই রাজিব। কিছুদিন আগে ঢাকা মহাখালীতে অস্ত্র ও ৮ শ পিচ ফেন্সিডিলসহ তার মাইক্রোবাস আটক করে পুলিশ। পরে কোটিপতি বাবার টাকায় দ্রুতই ছাড়া পাই রাজিব। এসে আবার দাপটের সাথে মাদক ও অস্ত্র ব্যবসা চালাতে থাকে ।

সম্প্রতি মাদকের বিরুদ্ধে প্রশাসন যুদ্ধ ঘোষণা করলে খাজানগরের বেশ কয়েক জন মাদকের রাগব বোয়াল গা ঢাকা দেয়। কিন্তু এই সুযোগে রাজিবের অস্ত্র ও মাদক ব্যবসা আরো জমজমাট ভাবে চালাতে থাকে। সে ক্ষমতাসীন দলের হয়ে প্রভাব খাটিয়ে এলাকার সাধারণ মানুষের সামনেই প্রকাশ্যে অস্ত্র ও মাদকের ব্যবসা চালিয়ে আসছিল। অবশেষে আজ সোমবার র‍্যাবের জালে আটকা পরে সে।

মাদক র‍্যাব সূত্রে জানা যায়, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে গতকাল বিকেলে কুষ্টিয়া র‍্যাব-১২ অভিযান চালিয়ে ১৬০ পিচ ইয়াবা, ২৩ রাউন্ড শটগানের গুলি, অবৈধ ইয়ার গান ও ৫ শতাধিক ইয়ার গানের গুলি, বিভিন্ন আগ্নেয়াস্ত্রের অংশবিশেষ পায়। এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত রাজিব আহম্মেদ এর বিরুদ্ধে অস্ত্র ও মাদক আইনে মামলার প্রস্তুতি চলছিল।

 

কুষ্টিয়া জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি ইয়াসির আরাফাত তুষারের মুঠোফোনে যোগাযোগ করা হলে তিনি বাংলা অলটাইম নিউজকে বলেন, রাজিব আহম্মেদ কুষ্টিয়া জেলা ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি। ঘটনার সত্যতা মিললে তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

এ বিষয়ে কুষ্টিয়া জেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক সাদ আহমেদের মুঠোফোনে যোগাযোগ করা হলে তিনি বাংলা অলটাইম নিউজকে বলেন, রাজিব আহমেদ এর বিরুদ্ধে অস্ত্র ও মাদকের সম্পৃক্ততার প্রমাণ মিললে তার বিরুদ্ধে সাংগঠনিক ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।