ইউক্রেনে হামলা চালাতে পারে রাশিয়া

মার্কিন প্রেসিডেন্টের জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা জ্যাক সুলিভান বলেছেন, রাশিয়া ‘যে কোনো দিন’ ইউক্রেনে হামলা চালিয়ে বসতে পারে।

ইউক্রেনের ওপর রাশিয়ার হামলাকে ‘অত্যাসন্ন’ মনে করছে না বলে হোয়াইট হাউn ঘোষণা দেওয়ার দুদিন পর রোববার এ বক্তব্য দিলেন সুলিভান। খবর রয়টার্সের।

মার্কিন জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা ফক্স নিউজকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে আরও বলেন, আমরা যুদ্ধের একেবারে দ্বারপ্রান্তে রয়েছি। এখন থেকে যে কোনো দিন বা কয়েক সপ্তাহের মধ্যে রাশিয়া ইউক্রেনের বিরুদ্ধে সামরিক ব্যবস্থা নিতে পারে।

এর পরিবর্তে রাশিয়ার কূটনৈতিক পন্থা বেছে নেওয়া উচিত বলে সুলিভান মন্তব্য করেন।

এর আগে শনিবার নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক দুজন মার্কিন কর্মকর্তা বলেছিলেন, ইউক্রেনে পূর্ণমাত্রার আগ্রাসন চালানোর জন্য যে পরিমাণ সমরশক্তির প্রয়োজন, তার প্রায় ৭০ শতাংশ দেশটির সীমান্তে মোতায়েন করেছে রাশিয়া।

মার্কিন জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা সুলিভান রোববার ইউক্রেন ইস্যুতে কয়েকটি টকশোতে অংশগ্রহণ করেন।

এনবিসির টকশোতে তিনি বলেন, রাশিয়া যে শুধু গোটা ইউক্রেন দখল করার লক্ষ্যে আগ্রাসন চালাতে পারে, তাই নয়; বরং ইউক্রেনের পূর্বাঞ্চলীয় দোনবাস অঞ্চলকে নিজ ভূখণ্ডের অন্তর্গত করতে পারে মস্কো।

২০১৪ সাল থেকে ওই অঞ্চলে রুশপন্থি অস্ত্রধারীরা ইউক্রেনের সেনাবাহিনীর বিরুদ্ধে লড়াই করে আসছে। ২০১৫ সালে ইউক্রেনের ক্রিমিয়া উপদ্বীপকে রুশ ফেডারেশনের অন্তর্ভুক্ত করেছিল রাশিয়া।

রাশিয়া ইউক্রেন সীমান্তে লক্ষাধিক সেনা ও সমরাস্ত্র মোতায়েন করলেও ইউক্রেনে হামলা চালানোর পরিকল্পনা করার অভিযোগ প্রত্যাখ্যান করছে।