কচুয়ায় ১৩ লাখ টাকা হাতিয়ে নেওয়ার অভিযোগে সংবাদ সম্মেলন

মোঃ তরিকুল ইসলাম, কচুয়া (বাগেরহাট) প্রতিনিধি: বাগেরহাট জেলার কচুয়া উপজেলায় বেশকিছু অভিযোগ এনে মোঃ মোবাশ্বের হোসেনের নামে সংবাদ সম্মেলন করেন ভুক্তভোগী কয়েকজন,অভিযুক্ত মোবাশ্বের গজালিয়া ইউনিয়নের আফতাব উদ্দিনের ছেলে।বাংলাদেশ মফস্বল সাংবাদিক ফোরাম কচুয়া শাখা অফিসের কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন মোঃনুরুল ইসলাম(৪৫) এসময় তার সাথে আরো ৫ জন ভুক্তভোগী উপস্থিত ছিলেন।
সংবাদ সম্মেলনে তিনি বলেন মোঃ মোবাশ্বের হোসেনে বিগত দুই বছর আগে পাইলিং এর ব্যবসা শুরু করেন।সে সময় তিনি মেশিন ক্রয়ের জন্য ভুক্তভোগীদের কাছ থেকে লাভ দেওয়ার কথা বলে নগদ ১২ লক্ষ ৭০ হাজার টাকা হাতিয়ে নেয়।এর পরে আজ-কাল বলে লভ্যঅংশ দেওয়া দুরের কথা আসল টাকা দিতে গড়িমসি শুরু করে।সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত সদস্য ছাড়াও এলাকার আরো অনেকে এমন প্রতারণার শিকার হয়ে সর্বশান্ত হয়েছে বলেও উল্লেখ্য করেন।
এবিষয়ে লিখিত বক্তব্যে আরো উল্লেখ করেন, বিভিন্ন সময় বিভিন্ন স্থানীয় গন্যমান্য ব্যক্তিদের কাছে এ বিষয়ে প্রতিকার চেয়ে নালিশ দিয়েও কোন প্রতিকার পাননি।অনেকেই আদালতে মামলা ও থানায় লিখিত মৌখিক অভিযোগ ও করেন।কিন্তু কোন প্রতিকার হচ্ছে না বলে সংবাদ সম্মেলনে উল্লেখ করেন।ফলে তারা অর্থনৈতিক সংকট সহ নানা চাপে আছেন।
এ বিষয় লিখিত অভিযোগে বলেন, অভিযুক্ত প্রতারক ও তার আপন বড় ভাই মোঃআবু বক্কার ছিদ্দিক বিভিন্ন সময় তাদের প্রকাশ্য ও ফোনে ভয়ভীতি দিয়েছেন।এছাড়াও তাদের বিরুদ্ধে উল্টো মিথ্যা অভিযোগ করে হয়রানি সহ মামলার দেওয়া হুমকি দেওয়া হয়েছে।লিখিত সংবাদ সম্মেলনে হয়রানির স্বীকার কয়েক জনের নাম উল্লেখ করেন এরা হলেন,মোঃনুরুল ইসলাম,জিয়াউর রহমান,মোঃআলমগীর,মোঃ নাছির শেখ,মোঃকাওছার শেখ।এরা সবাই গজালিয়া ইউনিয়নের মাদারতলা ও জোবাই গ্রামের বাসিন্দা।
সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সহায়তা কামনা ও ন্যায় বিচারের মাধ্যমে পাওনা টাকা ফেরত পাওয়া সহ হয়রানি থেকে বাঁচাতে চায় ভুক্তভোগী পরিবার।