‘ডিসিরাও উন্নয়ন প্রকল্প তদারকি করবেন’

জেলা পর্যায়ে উন্নয়ন প্রকল্পগুলো জেলা প্রশাসকরা (ডিসি) আইন অনুযায়ী তদারকি করবেন। জেলা প্রশাসকরা উন্নয়ন প্রকল্প তদারকি কমিটি গঠনের যে প্রস্তাব দিয়েছিলেন এর পরিপ্রেক্ষিতে সরকারের পক্ষ কমিটি গঠন ছাড়াই উন্নয়ন প্রকল্প তদারকি করতে তাদের পরামর্শ দেওয়া হয়েছে।

মঙ্গলবার ঢাকার ওসমানী স্মৃতি মিলনায়তনে জেলা প্রশাসক সম্মেলনের প্রথম অধিবেশন শেষে পরিকল্পনা মন্ত্রী এম এ মান্নান এ কথা জানান।

অধিবেশন শেষে ব্রিফিংয়ে মন্ত্রী বলেন, আমিও ডিসি ছিলাম। এলাকার ভেতরে কাজ দেখার অধিকার ডিসিদের আছে। যথেষ্ট দায়িত্ব ক্ষমতা তাদের হাতে আছে। এটাকে প্রয়োগ করা প্রয়োজন। সেজন্য ব্রিটিশ ধারণার যে ইন্পপেক্শন, সেটার প্রয়োজন নেই। তারা দেখতে যাবেন, ওভারসি করবেন, সেটা আরো বেশি করে করার জন্য ডিসি সাহেবদের অনুরোধ করেছি। আমরা আপনাদের সঙ্গে ঘন ঘন যোগাযোগ করি চিঠি দিই। সেগুলো অনুযায়ী আপনারা কাজ করবেন। আর কিছু প্রয়োজন হলে আমরা তো আছি। বিদ্যমান আইনেই জেলা প্রশাসকদের উন্নয়ন প্রকল্প দেখভালের দায়িত্ব দেওয়া আছে বলেও মন্তব্য করেন মন্ত্রী।

দিনের প্রথম অধিবেশনে মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রণালয়, পরিকল্পনা মন্ত্রণালয়, অর্থবিভাগ, বাস্তবায়ন পরিবীক্ষণ ও মূল্যায়ন বিভাগ, অথনৈতিক সম্পর্ক বিভাগ, আর্থিক প্রতিষ্ঠান বিভাগ ও অভ্যন্তরীণ সম্পর্ক বিভাগের ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষ জেলা প্রশাসকদের সঙ্গে বৈঠকে মিলিত হয়। করোনা পরিস্থিতির কারণে সামাজিক ও শারীরিক দূরত্ব বজায় রেখে তারা বৈঠকে অংশ নেন।

মন্ত্রী আরো বলেন, বৈঠকে জেলা প্রশাসকরা প্রকল্প বাস্তবায়নে যেন জেলা পর্যায়ে কমিটি করা হয়, সেটা চেয়েছিলেন। তবে আমরা বলেছি, এ কমিটি করার প্রয়োজন নেই। জেলা প্রশাসকরা তাদের এলাকায় যেসব প্রকল্প আছে, সেগুলো দেখতে পারেন। যেসব প্রকল্পে তাদের সম্পৃক্ততা প্রয়োজন তা যেন থাকে। বড় প্রকল্পগুলো একাধিক জেলাব্যাপীও হয়। তাই অনেক ক্ষেত্রে জেলা প্রশাসকদের নিয়ে কমিটি করে দেওয়া কঠিন।

বৈঠকে সরকারি প্রকল্পগুলোর জন্য ভূমি অধিগ্রহণে জেলা প্রশাসকদের সহায়তা চাওয়া হয়েছে বলেও পরিকল্পনা মন্ত্রী জানিয়েছেন।