দিনাজপুরের নবাবগঞ্জে উড়ে গিয়েছে আশ্রয়ণ প্রকল্পের ঘরের চাল

তাজকিরাতুল হক তানভীর,স্টাপ রিপোর্টার:
দিনাজপুর জেলার নবাবগঞ্জ উপজেলার মাহমুদপুর ইউনিয়নের ভেবটগাড়িতে প্রধানমন্ত্রীর দেওয়া উপহার আশ্রয়ণ প্রকল্পের ঘরে চরম উৎকণ্ঠা আর আতঙ্ক নিয়ে নির্ঘুম রাত কাটাচ্ছেন আশ্রয়ণ প্রকল্পের সুবিধাভোগীরা। বিশেষ করে ঝড়ে কখন, কার ঘরের চালা উড়ে যায় সেই আতঙ্কে রয়েছেন এ প্রকল্পের অধিবাসীরা। এমন পরিস্থিতির জন্য ঘর নির্মাণে নিম্নমানের কাজকে দুষছেন তারা।

জানা যায়, গত শুক্রবার রাতে উপজেলার ৮ নম্বর মাহমুদপুর ইউনিয়নের ভেবটগাড়ি আশ্রয়ণ প্রকল্পে ঝড়ে ঘরের চাল উড়ে যায়, এতে অল্পের জন্য বেঁচে যায় পাশের মর্জিনা বেগম নামে আরেক সুবিধাভোগী।

এ প্রকল্পের সুবিধাভোগী একজন বাসিন্দা হলেন মো. বাশার মিয়া। তিনি বলেন, ‘ঝড়ের রাতগুলো আমাদের খুব আতঙ্কে কাটছে। এখানকার ঘরের নিম্নমানের কাজের কারণে ঝড়ে কখন, কার ঘরের চাল উড়ে যায় এর কোনো ঠিক নাই।’ এ জন্য তিনি প্রকল্পে নিম্নমানের কাজ করার অভিযোগ করেন।

মো. সোহরাব আলী নামে প্রকল্পের আরেক বাসিন্দা বলেন, ‘উড়ে পড়া ছাউনিতে মাত্র ৩ ফিটের আড়াই সুতি রড দিয়ে কাঠের উয়া প্যাঁচানো ছিল। যেই রডটি মাটির নিচ পর্যন্ত থাকার কথা।’
সোহরাব আরও বলেন, ‘এ প্রকল্পে মাটির নিচে বেশি পাতানো হয় নাই। ঘরের দেয়ালের নিচের দিকে ও ওপরে দুই স্থানে ঢালাই দেওয়া লাগে, সেখানে কোথাও ঢালাই ব্যবহার না করায় অল্প বাতাসে সহজেই চালা উড়ে পড়ে।’

এ বিষয়ে উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা মো. রেফাউল আজম বলেন, ‘বর্তমানে চলমান প্রকল্পের চেয়ে ভেবটগাড়ি আশ্রয়ণের গত বছরের প্রকল্পে কম বাজেট ছিল। তাই সেই প্রকল্পে কিছুটা সমস্যা থাকতে পারে। তা ছাড়া ওই প্রকল্পের আশপাশ ফাঁকা, সেখানে বড় কোনো গাছপালা না থাকায় ঝড়ে কিছুটা ঝুঁকি থাকে।’ ঝড়ে উড়ে যাওয়া ছাউনির বিষয়ে খোঁজ খবর নিয়ে ব্যবস্থা নেওয়ার কথা জানান তিনি।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) অনিমেষ সোম বলেন, আশ্রয়ণ প্রকল্পের অধিবাসীদের সমস্যাটি সরেজমিনে পরিদর্শন করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।
Alltimenews /razu