পটুয়াখালীতে সেই-তরুণীর মামলায় কারাগারে কলেজ ছাত্র

তোফাজ্জেল ইসলাম সাঈদ খান, পটুয়াখালী প্রতিনিধি:

ইশরাত জাহান পাখির বিরুদ্ধে নাজমুলকে জোর করে বিয়ে করার অভিযোগ ওঠে।

পটুয়াখালীতে জোর করে বিয়ে করা সেই তরুণী ইশরাত জাহান পাখির যৌতুক মামলায় কলেজ ছাত্র নাজমুল হাসানকে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দিয়েছে আদালত।

সোমবার (৬ ডিসেম্বর ) পটুয়াখালী সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের বিচারক আশিকুর রহমান এই আদেশ দেন। পাখির আইনজীবী আবুল কালাম আজাদ বলেন, পাখি জোর করে নাজমুল কে বিয়ে করেননি। যৌতুক না দেওয়ায় পাখির বিরুদ্ধে মিথ্যা অভিযোগ এনেছে নাজমুল। আসামি নাজমুল পাখির কাছে পাঁচ লাখ টাকা যৌতুক দাবি করে আসছিল। যৌতুক না দেওয়ায় তার বিরুদ্ধে জোর করে বিয়ে করার অভিযোগ আনা হয়৷

সোমবার এ সংক্রান্ত তথ্য উপস্থাপন করা হলে নাজমুলকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন আদালত৷ যৌতুকের অভিযোগ এনে চলতি বছরের ১২ অক্টোবর নাজমুলকে প্রধান আসামি করে পটুয়াখালী সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রট আদালতে একটি মামলা করেন পাখি। মামলায় নাজমুলের বাবা-মাকেও আসামি করা হয়।