বাগেরহাট সওজের অবৈধ উচ্ছেদ অভিযান শুরু

বাগেরহাট প্রতিনিধি: খুলনা-মোংলা মহাসড়কে বাগেরহাট সড়ক ও জনপথ বিভাগের অবৈধ উচ্ছেদ অভিযান শুরু করা হয়েছে। এবং প্রথম দিনেই ৫শতাধিক অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ ও প্রায় ৩ একর সরকারী জমি উদ্ধার করা হয়েছে।

বুধবার (১৯ জানুয়ারি) সকালে খুলনা-মোংলা মহাসড়কের মোংলার দিগরাজ এলাকা থেকে এই উচ্ছেদ অভিযান পরিচালনা করা হয়। সড়ক ও জনপথ বিভাগের উপ-সচিব এবং এষ্টেট ও আইন কর্মকর্তা এবং অভিযানের নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট অনিন্দিতা রায় এর নের্তৃত্বে এই উচ্ছেদ অভিযান পরিচালনা করা হয়।

জানা গেছে, সারাদেশে অবৈধ উচ্ছেদ অভিযানের অংশ হিসাবে ও খুলনা-মোংলা মহাসড়ক ৬ লেনে উন্নত করার লক্ষে বাগেরহাট সড়ক ও জনপথ বিভাগ অবৈধ উচ্ছেদ অভিযান শুরু করেছেন। প্রথম দিনেই তারা মোংলার দিগরাজ বাসস্ট্যান্ডের দুইপার্শ্বে অবস্থিত বিপুল পরিমানে কাচা-পাকা ভবন, ঝুপড়ি ঘর ও রাস্তার পার্শ্বে মজুদ করে রাখা ইট বালু পাথরের খোয়া ও কাঠের লক বুলডোজার এবং স্কোভেটর দিয়ে স্থাপনা গুলিয়ে ভেঙ্গে ও সরিয়ে ফেলেন। সকাল ১০টা হতে দুপুর বিকাল পর্যন্ত দিগরাজ এলাকায় ভাঙ্গার কাজ শুরু করেন। তারা আগামীকাল বৃহস্পতিবার চুলকাটি ও কাটাখালী বাসস্ট্যান্ড এলাকায় দ্বীতিয় দিনের অভিযান পরিচালনা করবেন।

এসময় উপস্থিত ছিলেন সড়ক ও জনপথ বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী মোঃ ফরিদ উদ্দিন, এসডিই সাগর সৈকত মন্ডল, উপ-সহকারী প্রকৌশলী মতিউর রহমান, সার্ভেয়ার মোঃ মিজানুর রহমান ও কার্য-সহকারী আব্দুল গণি।

অভিযানে সহযোগীতা করেন, জেলা পুলিশের সহকারী উপ-পুলিশ পরিদর্শক (এএসআই) মোঃ ইকরামুল ইসলাম এর নের্তৃত্বে একদল পুলিশ ও মোংলা ইপিজেড ফায়ার সর্ভিসের লিডার মোঃ রেজাউল করিম এর নেতৃত্বে ফায়ার সার্ভিসের বিপুল সংখ্যাক সদস্য।

এ ব্যাপারে সড়ক ও জনপথ বিভাগের উপ-সচিব এবং এষ্টেট ও আইন কর্মকর্তা এবং অভিযানের নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট অনিন্দিতা রায় বলেন, সারাদেশে অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ অভিযানের অংশ হিসাবে এবং খুলনা-মোংলা মহাসড়ক ৬লেনে উন্নত করার জন্য দিগরাজ হতে কাটাখালী পর্যন্ত আমরা অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ অভিযান শুরু করেছি। বাকি সড়ক গুলি পর্যায়ক্রমে করা হবে।