বেগম খালেদা জিয়ার রোগমুক্তি কামনায় বাইতুল মোকাররমে দোয়া

স্টাপ রিপোর্টার:
বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল-বিএনপির চেয়ারপারসন ও সাবেক প্রধানমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়ার আশু রোগমুক্তি কামনায় ঢাকায় জাতীয় মসজিদ বাইতুল মোকাররমে দোয়া করা হয়েছে।

শুক্রবার জুমার নামাজের পর দোয়ায় খালেদা জিয়ার রোগমুক্তি কামনায় দোয়া করেন বাইতুল মোকাররমের খতিব। একইসাথে তিনি প্রধানমন্ত্রীসহ তার পরিবারের জন্যও দোয়া করেন।

পরে সুন্নত নামাজ শেষে বাইতুল মোকাররম প্রাঙ্গণে খালেদা জিয়ার জন্য ভিন্ন করে আবার দোয়া মাহফিলের আয়োজন করে বিএনপি। সিনিয়র নেতৃবৃন্দসহ বিএনপির কয়েক হাজার নেতাকর্মী এতে অংশ নেন। মাহফিলে দোয়া পরিচালনা করেন ওলামা দলের আহ্বায়ক শাহ নেসারুল হক।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন, মির্জা আব্বাস, নজরুল ইসলাম খান, আমির খসরু মাহমুদ চৌধুরী, ইকবাল হাসান মাহমুদ টুকু, চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা আব্দুস সালাম, আমান উল্লাহ আমান, তৈমুর আলম খন্দকার, যুগ্ম মহাসচিব খায়রুল কবির খোকন, চেয়ারপারসনের একান্ত সহকারি শিমুল বিশ্বাস, বিএনপির প্রচার সম্পাদক শহিদ উদ্দিন চৌধুরী এ্যানী, সেচ্ছাসেবক বিষয়ক সম্পাদক মীর সরাফত আলী সপু, শিল্প বিষয়ক সম্পাদক সালাউদ্দিন আহমেদ, সাবেক এমপি জহিরউদ্দিন স্বপন, সহ সম্পাদক মোস্তাফিজুর রহমান বাবুল, আনিসুর রহমান তালুকদার খোকন, যুবদল সভাপতি সাইফুল ইসলাম নীরব, সাধারন সম্পাদক সুলতান সালাউদ্দিন টুকু, সিনিয়র সহ সভাপতি মোস্তাফিজুল করিম বাদরু, স্বেচ্ছাসেবক দলের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মোস্তাফিজুর রহমান, সাধারন সম্পাদক আব্দুল কাঁদির ভুঁইয়া জুয়েল, বিএনপি নেতা ইশরাক হোসেন, মহানগর উত্তর বিএনপির সাধারন সম্পাদক আমিনুল ইসলাম, দক্ষিনের সাধারন সম্পাদক রফিকুল আলম মজনু, কৃষক দলের সভাপতি হাসান জাফির তুহিন, সাধারন সম্পাদক শহিদুল ইসলাম বাবুল, ওলামা দলের আহ্বায়ক শাহ নেসারুল হক, ছাত্রদলের সভাপতি ফজলুর রহমান খোকন, সাধারন সম্পাদক ইকবাল হোসেন শ্যামল, সিনিয়র সহসভাপতি কাজী রওনকুল ইসলাম শ্রাবণ প্রমুখ।

এর আগে সকাল ১১টায় রাজধানীর বিভিন্ন স্থান থেকে নেতাকর্মীরা বায়তুল মোকাররম দক্ষিন গেইটে অবস্থান নিতে শুরু করে। বেলা বাড়ার সাথে সাথে নেতাকর্মীর সংখ্যাও বাড়তে থাকে। পরে কয়েক হাজার নেতাকর্মী বায়তুল মোকাররমে আসেন। নামাজ শেষে বেগম খালেদা জিয়ার জন্য দোয়া ও মোনাজাত করা হয়। পরে নেতাকর্মীরা শান্তিপূর্ণভাবে বায়তুল মোকাররম ত্যাগ করেন।

এদিন মুসল্লিদের নিরপত্তা নিশ্চিতে বায়তুল মোকাররম ও এর আশেপাশের এলাকায় নিরাপত্তা জোরদার করে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী।