মরক্কো উপকূলে নৌকাডুবিতে ৪৩ অভিবাসী নিহত

মরক্কোর উপকূলে অভিবাসীবোঝাই একটি নৌকাডুবিতে ৪৩ অভিবাসীর মৃত্যু হয়েছে। নিহতদের মধ্যে তিনজন শিশু রয়েছে। এ ঘটনায় ১০ অভিবাসীকে জীবিত উদ্ধার করা হয়েছে। খবর এএফপি।

দেশটির দক্ষিণাঞ্চলীয় তারফায়া উপকূলে অভিবাসীবোঝাই ওই নৌকাটি ডুবে গেলে প্রাণহানির এ ঘটনা ঘটে।

এএফপির খবরে বলা হয়েছে— মঙ্গলবার অভিবাসীদের অধিকার রক্ষায় কাজ করা স্প্যানিশ মানবাধিকার সংস্থা ক্যামিনাডো ফ্রন্টিরাস।

এ ছাড়া দুর্ঘটনাকবলিত নৌকা থেকে ১০ অভিবাসীকে জীবিত উদ্ধার করা হয়েছে বলেও সংস্থাটির মুখপাত্র জানিয়েছেন।

এএফপির খবরে বলা হয়েছে— রোববার ভোরে অভিবাসীবোঝাই ওই নৌকাটি মরক্কোর দক্ষিণাঞ্চলীয় তারফায়া উপকূলে ডুবে যাওয়ার পর সাহায্যের জন্য চিৎকার করছিলেন জীবিতরা। পরে দুই ঘণ্টা পর তাদের সঙ্গে যোগাযোগ করা সম্ভব হয়।

ক্যামিনাডো ফ্রন্টিরাস জানিয়েছে, দুর্ঘটনাকবলিত নৌকা ঠিক কোথায় অবস্থান করছে, সেটি চিহ্নিত করতে এবং উদ্ধারকাজ চালাতে মরক্কো কর্তৃপক্ষের কয়েক ঘণ্টা সময় লেগে যায়। নিহত ৪৩ জনের মধ্যে এখন পর্যন্ত মাত্র দুজনের লাশ উদ্ধার করা সম্ভব হয়েছে।

অভিবাসীরা নৌকায় করে স্পেনের ক্যানারে দ্বীপপুঞ্জের দিকে যাচ্ছিলেন। মরক্কোর দক্ষিণাঞ্চলীয় তারফায়া উপকূল থেকে দ্বীপপুঞ্জটি ১০০ কিলোমিটার (৬২ মাইল) দূরে অবস্থিত।

সাম্প্রতিক মাসগুলোতে ইউরোপে প্রবেশের ট্রানজিট রুট হিসেবে উত্তর আফ্রিকার এ দেশটি অভিবাসীদের কাছে খুবই জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে।

মানবাধিকার সংস্থা ক্যামিনাডো ফ্রন্টিরাসর তথ্যমতে, অবৈধভাবে ইউরোপের দেশ স্পেনে প্রবেশের চেষ্টায় কেবল ২০২১ সালে চার হাজারেরও বেশি অভিবাসী প্রাণ হারিয়েছেন বা সাগরে হারিয়ে গেছেন, যা ২০২০ সালের তুলনায় দ্বিগুণ।

সাগরে মারা যাওয়া বা হারিয়ে যাওয়া এসব অভিবাসীর অধিকাংশেরই লাশ আর খুঁজে পাওয়া যায়নি।