মাক্স না পরায় পুলিশকে আটক করল পুলিশ

নিউজ রুমঃ

করোনাভাইরাসের সংক্রমণ রোধে কঠোর বিধিনিষেধ জারি করেছে ভারতের বিভিন্ন রাজ্য। বাধ্য করা হয়েছে মাস্ক পরিধান। যারা মাস্ক ছাড়া বাইরে ঘুরছেন তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে। এবার মাস্ক না পরায় এক পুলিশকর্মীকে টেনেহিঁচড়ে গাড়িতে তুলে নিয়ে আটক করলো পশ্চিমবঙ্গের পুলিশ। এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানিয়েছে আনন্দবাজার পত্রিকা।

প্রতিবেদনে বলা হয়, ঘটনাটি ঘটেছে উত্তর ২৪ পরগনা জেলার দেগঙ্গায়। করোনা স্বাস্থ্যবিধি ভেঙ্গে মাস্ক না পরায় এক পুলিশকর্মীকে টেনেহিঁচড়ে গাড়িতে তুলে নিয়ে আটক করেছে দেগঙ্গা থানার আরেক পুলিশ সদস্য।

পশ্চিমবঙ্গের দেগঙ্গায় করোনার কড়া বিধিনিষেধ জারি হয়েছে, মঙ্গলবার (১৭ জানুয়ারি) থেকে দফায় দফায় সপ্তাহে দুদিন করে ১২ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত মোট ৭দিন এলাকার সব দোকানপাট হাট-বাজার বন্ধ থাকবে। আর তার প্রস্তুতি ইতোমধ্যেই নিতে শুরু করেছে উত্তর ২৪ পরগনা জেলা প্রশাসন।

সোমবার দেগঙ্গার পুলিশপ্রধান সৌমজিৎ বড়ুয়া পুলিশবাহিনী নিয়ে বেড়াচাঁপা-বাদুড়িয়া রাস্তার মোড়ে মানুষকে মাইক প্রচারের মাধ্যমে জন সচেতনতা কর্মসূচি পালন করছিলেন। তাদের সঙ্গেই উপস্থিত ছিলেন দেগঙ্গার তৃণমূল কংগ্রেসের সভাপতি আনিসুর রহমান। এসময় ওই পুলিশকর্মী সাধারণ পোশাকে তার স্ত্রীকে মোটরসাইকেলে করে মাস্কবিহীন অবস্থায় যাচ্ছিলেন।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, পুলিশ কর্মকর্তারা ওই মাস্কহীন পুলিশকর্মীকে দাঁড় করানোর নির্দেশ দেন। কেন তিনি মাস্ক পরেননি, তার কারণ জিজ্ঞাসা করায় পুলিশের সঙ্গে তর্কে জড়িয়ে পড়েন ওই অভিযুক্ত পুলিশকর্মী।

এর পর তাকে টেনে-হিঁচড়ে পুলিশের গাড়িতে তোলা হয় এবং আটক করা হয়। পরে জানা যায় ওই ব্যক্তি রাজ্য পুলিশের কনস্টেবল। রাজ্যের এক মন্ত্রীর নিরাপত্তারক্ষীর দায়িত্ব পালন করছেন।