মুদ্রাস্ফীতি ও উচ্চ সুদের বিরুদ্ধে লড়াইয়ে এরদোগানের প্রতিজ্ঞা

তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রজব তাইয়েব এরদোগান বলেছেন, সুদের হার কমানোর প্রচেষ্টা তিনি অব্যাহত রাখবেন এবং মুদ্রাস্ফীতির বিরুদ্ধে লড়াই করে যাবেন।

রোববার ইস্তাম্বুলের দোলমাবাহচে প্রাসাদে তুর্কি দাতব্য সংস্থা ইলিম ইয়াইমা ফাউন্ডেশনের একাডেমি অ্যাওয়ার্ড অনুষ্ঠানে বক্তব্যে এই কথা জানান তিনি।

বক্তব্যে এরদোগান বলেন, ‘মুক্ত বাজার অর্থনীতির নিয়ম অনুসরণ করেই তুরস্কের অর্থনীতি অগ্রসর হওয়া অব্যাহত রাখবে, যেভাবে আগে হয়েছিলো।’

তিনি বলেন, অনেকের দাবি তুরস্কে বর্তমানে ‘অর্থনৈতিক জরুরি অবস্থা’ ঘোষণা করা প্রয়োজন। কিন্তু তা সঠিক নয়।

এরদোগান বলেন, ‘আমাদের সরকারের প্রবর্তিত অর্থনৈতিক নীতিতে আমরা যে লক্ষ্য নির্ধারণ করেছিলাম, সেদিকেই এগিয়ে যাচ্ছি। ব্যতিক্রম হচ্ছে শুধু বিনিময় হারের চক্রাকার পরিবর্তনে।’

উচ্চ হারের সুদের বিরুদ্ধে লড়াই অব্যাহত রাখবেন বলে প্রত্যয় জানান এরদোগান।

তিনি বলেন, ‘আমার কাছ থেকে ভিন্ন কিছু আশা করবেন না।’

এদিকে আফ্রিকার তরুণদের সাথে এক সমাবেশে রজব তাইয়েব এরদোগান বলেছেন, ‘আগে হোক বা পরে হোক, যেভাবে ক্ষমতায় আসার পর আমরা মুদ্রাস্ফীতি চার ভাগ কমিয়ে এনেছিলাম, পুনরায় আমরা তা কমিয়ে আনবো।’

ইস্তাম্বুলে অনুষ্ঠিত তুরস্ক-আফ্রিকা সম্মেলন সমাপ্তির পর রোববার এই সমাবেশে তিনি বলেন, ‘কিন্তু আমি আমার জনগণকে, আমার লোকজনকে সুদের হারে চাপা পড়তে দেবো না।’

তুর্কি প্রেসিডেন্ট বলেন, ‘ইনশাআল্লাহ, যত শিগগির সম্ভব মুদ্রাস্ফীতি কমে যাবে।’

এদিকে গত বৃহস্পতিবার তুরস্কের কেন্দ্রীয় ব্যাংক সুদের হার আর একদফা কমিয়ে ১৫ ভাগ থেকে ১৪ ভাগে নিয়ে এসেছে।

এদিকে তুরস্কের স্ট্যাটিস্টিক্যাল ইনস্টিটিউটের তথ্য অনুসারে, গত নভেম্বরে দেশটির মুদ্রাস্ফীতির হার ছিলো ২১.৩১ শতাংশ।

সূত্র : টিআরটি ওয়ার্ল্ড