শপথের ১২ ঘণ্টা না পেরোতেই পদত্যাগ সুইডেন প্রধানমন্ত্রীর

সুইডেনের প্রধানমন্ত্রী হিসেবে শপথ নেয়ার ১২ ঘণ্টা না পেরোতেই পদত্যাগ করেছেন দেশটির প্রথম নারী প্রধানমন্ত্রী মাগদালেনা অ্যান্ডারসন।

বুধবার পার্লামেন্টের স্পিকারের কাছে পদত্যাগ করার কথা জানান তিনি।

সরকার গঠনে অ্যান্ডারসনের সোশ্যাল ডেমোক্রেটিক পার্টির সাথে সরকারের অংশীদ্বারিত্ব থাকা গ্রিন পার্টির জোট ত্যাগের ঘোষণার পর পদত্যাগের কথা জানালেন তিনি।

এর আগে বুধবার সুইডেনের আইনসভায় সদস্যদের সমর্থনে সোশ্যাল ডেমোক্রেটিক পার্টি ও গ্রিন পার্টির জোটের পক্ষ থেকে দেশটির প্রথম নারী প্রধানমন্ত্রী হিসেবে শপথ নেন মাগদালেনা অ্যান্ডারসন।

২০১৪ সাল থেকে সুইডেনের অর্থমন্ত্রীর দায়িত্ব পালন করে আসছিলেন অ্যান্ডারসন। চলতি বছরের বার্ষিক বাজেট পার্লামেন্টে উত্থাপন করেছিলেন তিনি।

কিন্তু পার্লামেন্টের সদস্যরা তা খারিজ করে দেয়। এর পরই গ্রিন পার্টি জোট সরকার থেকে বেরিয়ে যাওয়ার ঘোষণা দেয়।

বুধবার পদত্যাগের পর এক সংবাদ সম্মেলনে অ্যান্ডারসন বলেন, ‘আমি স্পিকারকে প্রধানমন্ত্রীর দায়িত্ব থেকে আমাকে অব্যাহতি দেয়ার আবেদন করেছি। তবে একক সোশ্যাল ডেমোক্রেট সরকারের প্রধানমন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব পালন করতে আমি প্রস্তুত।’

সুইডেনের বার্ষিক বাজেটে সরকারি প্রস্তাবের বদলে বিরোধী রক্ষণশীল দলগুলোর প্রস্তাব অনুসারে বাজেট পাস হওয়ার জেরে জোট ছেড়ে যায় গ্রিন পার্টি। ১৫৪-১৪৩ ভোটে বিরোধী দলীয় বাজেট প্রস্তাব অনুমোদিত হয়।

তবে গ্রিন পার্টি জানিয়েছে, বাজেট প্রস্তাবে তাদের অনুমোদন না থাকলেও ভবিষ্যতে অ্যান্ডারসনকে তারা নতুন জোট গঠনে সহায়তা করবে। অপরদিকে সুইডিশ লেফট পার্টি জানিয়েছে, তারাও অ্যান্ডারসনকে সমর্থন করবে।

এদিকে পার্লামেন্টের স্পিকার অ্যান্দ্রেস নরলেন জানিয়েছেন, বর্তমান পরিস্থিতি নিয়ে আলোচনা করতে তিনি সুইডেনের আট দলের প্রধানের সাথে আলোচনা করবেন। বৃহস্পতিবার ৩৪৯ সদস্যের পার্লামেন্টের পরবর্তী পদক্ষেপ সম্পর্কে ঘোষণা করবেন তিনি।

এর আগে গত ১০ নভেম্বর সুইডেনের প্রধানমন্ত্রী স্টিফেন লফভেন পদত্যাগ করেন। তার পদত্যাগের পর পার্লামেন্ট সদস্যদের অনুমোদনে নতুন প্রধানমন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব গ্রহণ করেছিলেন অর্থমন্ত্রী মাগদালেনা অ্যান্ডারসন।

সূত্র : আলজাজিরা ও বিবিসি