শৈলকুপায় এবার তৃতীয় লিঙ্গের ইউপি সদস্য প্রার্থী জয়ী

আব্দুর রহিম, ঝিনাইদহ প্রতিনিধি:

নজরুল ইসলাম রিতু নামে এক তৃতীয় লিঙ্গের স্বতন্ত্র প্রার্থী চেয়ারম্যান নির্বাচিত হওয়ার পর এবার ঝিনাইদহের শৈলকুপা উপজেলার ফুলহরি ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে আরেক তৃতীয় লিঙ্গের প্রার্থী সংরক্ষিত মহিলা ওয়ার্ড সদস্য নির্বাচিত হয়েছেন। তার নাম শম্পা খাতুন পপি। তিনি হেলিকপ্টার প্রতীক নিয়ে ২ হাজার ১০১ ভোট পেয়েছেন। বুধবার ৫ম ধাপের ইউপি নির্বাচনে ফুলহরি ইউনিয়নের ১, ২ ও ৩ নং ওয়ার্ডে তিনি প্রতিদ্বন্দি করে বড় ব্যবধানে জয়ী হয়েছেন। শৈলকুপা উপজেলা নির্বাচন অফিসের দেওয়া তথ্যমতে, মাগুরার শালিখা উপজেলার আড়পাড়া গ্রামের রুহুল আমিন খন্দকারের ৪র্থ সন্তান শম্পা খাতুন পপি। ঝিনাইদহের শৈলকুপা উপজেলার ফুলহরি গ্রামের আব্দুল আমিন রাসেলের সাথে ২০১৩ সালে বিয়ে হয় পপির। প্রথম দিকে রাসেলের পরিবারের পক্ষ থেকে তার সাথে ভালো আচরণ করলেও কিছুদিন পর শুরু হয় মারধর ও নির্যাতন। গত বছর তাকে তালাক দেয় রাসেল। ফুলহরি থেকে যাওয়ার সিদ্ধান্ত নেন পপি। গ্রামের মানুষের সেবা করে মন জয় করেন তিনি। তফসিল ঘোষণা করার পর নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দিতা করার সিদ্ধন্ত নেন পপি। মেম্বর পদের জন্য সাধারণ মানুষের কাছে ভোট চাওয়া শুরু করে দেন। মানুষের মাঝে আশানুরুপ সাড়া পান। বুধবার অনুষ্ঠিত নির্বাচনে বিজয়ী হওয়ার পর শম্পা খাতুন পপি জানান, আমি এলাকায় দেখেছি জনপ্রতিনিধিরা মানুষকে কত হয়রানি করে। বিভিন্ন ভাতা দেওয়ার জন্য অসহায় মানুষের কাছ থেকে টাকা নেয় তারা। তাদের হাত থেকে মানুষকে রক্ষা করতে আমি ভোটযুদ্ধে অংশ নিয়েছিলাম। মানুষের উপকার করি বলেই তারা আমাকে ভোট দিয়ে নির্বাচিত করেছেন। ভোটাররা আমাকে নির্বাচিত করেছেন আমি তাদের সাথে নিয়ে কাজ করতে চাই। উল্লেখ্য ঝিনাইদতহের কালীগঞ্জ উপজেলার ত্রিলোচনপুর ইউনিয়নে নজরুল ইসলাম রিতু নামে এক তৃতীয় লিঙ্গের স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থী নৌকার প্রার্থীকে দিগুন ভোটে হারিয়ে দেশের মধ্যে প্রথম ইউপি চেয়ারম্যান নির্বাচিত হন।