শৈলকুপায় স্বতন্ত্র প্রার্থীর সমর্থকদের ব্যবসা প্রতিষ্ঠান ভাংচুর

আব্দুর রহিম,ঝিনাইদহ প্রতিনিধি:

ঝিনাইদহের শৈলকুপা উপজেলার ফুলহরি ইউনিয়ন অশান্ত হয়ে উঠেছে। নৌকার প্রার্থী ও তার সমর্থকদের বিরুদ্ধে দোকানপাট ও ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে হামলা এবং নির্বাচনী প্রচারে বাধা প্রদানের অভিযোগ উঠেছে। সোমবার রাতে স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থী আওলাদ হোসেনের সমর্থকদের ব্যাবসা প্রতিষ্ঠান ভাংচুর ও হামলা চালিয়েছে নৌকার সমর্থকরা। শৈলকুপার ফুলহরী পুরাতন বাজারের মুদি দোকানী ইমান বিশ্বাস, চা দোকানী ইমরুল মন্ডল, মুদি ও চা দোকানী মিটুল বিশ্বাস, ইখতিয়ার এবং নদীর চর পুটিমারী গ্রামের আমিরুল ইসলামের মুদি দোকান ভাংচুর করা হয়। হামলা করা হয়েছে স্বতন্ত্র প্রার্থীর সমর্থকদের উপর। হামলায় জাইয়ার রহমান, আমিরুল ইসলাম ও রাজু আহম্মেদ আহত হন। আহতদের মধ্যে জাইয়ার ও রাজু আহম্মেদকে ঝিনাইদহ সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। ঘটনার পরপরই শৈলকুপা থানা পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে। খবর পেয়ে র‌্যাব এলাকায় টহল দিচ্ছে। স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থী আওলাদ হোসেন অভিযোগ করেন, নৌকার চেয়ারম্যান প্রার্থী জামিরুল ইসলাম বিপুলের সমর্থকরা এই হামলার সঙ্গে জড়িত। এছাড়া তারা নির্বাচনী প্রচারনায় বাধা প্রদানসহ অহরহ আচরণ বিধি ভঙ্গে করে চলেছেন। তিনি বলেন, নৌকার প্রার্থী ও সমর্থকরা উস্কানী মুলক বক্তব্য দিচ্ছেন। নৌকার কোন পোষ্টার ছেড়া হয়নি। তবে নৌকার প্রার্থী জামিরুল ইসলাম বিপুল অভিযোগ খন্ডন করে বলেন, ফুলহরী কাজীপাড়া স্কুল এলাকা থেকে তার পোষ্টার ছিড়ে ফেলার পর একটু উত্তেজনার সৃষ্টি হয়। তার সমর্থকরা প্রতিপক্ষের উপর কোন হামলা বা ভাংচুরের ঘটনা ঘটায়নি। শৈলকুপা থানার সেকেন্ড অফিসার এসআই আমিরুজ্জামান জানান, আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতির কোন রকম অবনতি যাতে না ঘটে সে জন্য পুলিশ সদা সতর্ক রয়েছে। গোটা ফুলহরি ইউনিয়ন নজরদারীতে রয়েছে।