২৪ ঘন্টায় খোঁজ মেলেনি এক তরুণীর

পটুয়াখালী সদর প্রতিনিধি, তোফাজ্জেল হোসাইন:

পটুয়াখালী সদর উপজেলার বদরপুর ইউনিয়নের ৯ নং ওয়ার্ডের শিয়ালী গ্রামের মেয়ে মোসাঃ জামিলা আক্তার(১৩) আজ মঙ্গলবার দুপুর ১২ টার সময়ে তার নানা বাড়ি থেকে নিখোঁজ হয়। তার পড়নে ছিল কমলা রঙের গোল জামা ও পাজামা।

জামিলার নানি জানান, প্রতিদিনের মতো সবার সাথে দুপুরের খাওয়ার পরে আমার সাথে ঘুমিয়ে পড়ে। এর মধ্যে হঠাৎ দৌড় দিয়ে বাইরে বেরিয়ে পড়ে। আমি ধরার জন্য চেষ্টা করলে ব্যর্থ হই এবং মনে করেছি একটু পরে ফিরে আসবে। কিন্তু দুপুর গড়িয়ে রাত হলেও এখনো ফিরে আসেনি সে। স্বজনদের সাথে যোগাযোগ করলে তারা কোন খোঁজ দিতে পারেনি। আমার এই স্নেহের নাতনিকে খুঁজে না পেয়ে অসহায় হয়ে পড়েছি। এই বলে তিনি কান্নায় ভেঙে পড়েন।

জামিলার মা জানান, আমি প্রতিদিনের মতো বাসায় রেখে পটুয়াখালী সরকারি হাসপাতালের পাশে ডিউটিতে যাই। দুপুরে হঠাৎ শুনি জামিলা কে পাওয়া যাচ্ছে না। সাথে সাথেই আমি আত্মীয়-স্বজনদের সাথে যোগাযোগ শুরু করি কিন্তু তাতে সম্পূর্ণ ব্যর্থ হই‌। এর আগেও জামিলা আনেক বার এদিক সেদিক চলে যেত এবং ফোন করে বলতো।একবার পটুয়াখালী সদর লঞ্চে উঠে পড়ে বগা লঞ্চ ঘাটে নেমে এক অটো ড্রাইভারের নাম্বার দিয়ে কল দেয়। ওর-কাছে ফোন নাম্বার মুখস্থ আছে।
জামিলার মায়ের ধারণা, সে পটুয়াখালীর যেকোনো লঞ্চে উঠতে পারে। পটুয়াখালী সদর লঞ্চ ঘাটে বাবা খোঁজ করে কিন্তু পাওয়া যায়নি। কিন্তু বগা ঘাট থেকে উঠতে পারে এ বলে কান্নায় ভেঙ্গে পড়ে জামিলার মা মোসাঃ সালমা আক্তার।

জামিলার নানা জানান, আমি শোনার সাথে সাথে ছুটে যাই লঞ্চ ঘাটে এবং বিভিন্ন জায়গায় খোঁজ করি রাত পর্যন্ত কিন্তু পাইনি। এ বলে কান্নায় ভেঙ্গে পড়ে মাওলানা আব্দুল মাজেদ খান।

হারানো জামিলার পরিবার নিম্নের ঠিকানা। যদি কোন সহৃদয়বান ব্যক্তি সন্ধান পেয়ে থাকেন তাহলে যোগাযোগ করার জন্য অনুরোধ করা যাইতেছে।
যোগাযোগের ঠিকানাঃ পটুয়াখালী সদর, ইউনিয়নঃ-বদরপুর, গ্রামঃ- শিয়ালী, ওয়ার্ড নং ৯

মোবাইলঃ-
মাতাঃ- 01736352490 নানাঃ- 01721584293/ 01635070509 মামাঃ- 01754825499 / 01638222028 (তোফাজ্জেল)